ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে ইনকাম করুণ

ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে ইনকাম! হুম, অনলাইন থেকে টাঁকা ইনকাম করা সবার কম্ম নয়? সবাই কি আর অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারে!

আপনার চিন্তা ভাবনা যদি এমন হয়ে থাকে; তাহলে আমি আজ আপনার চিন্তা ভাবনা সম্পূর্ণ ভাবে বদলে দিবো।

অনলাইন থেকে ইনকাম করার সব থেকে সহজ একটি উপায় আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করার চেস্টা করবো।

আশা করি সত্যি এই আর্টিকেল টি আপনার উপকারে আসবে। তো সাথেই থাকুন…

ওয়ার্ডপ্রেস কি ?

সমস্যা নেই; আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে আগে থেকে পরিচিত না হয়ে থাকেন তাহলেও আপনি এই কাজ টি আরামসে করতে পারবেন।

আচ্ছা এখন কাজের কথায় আসি, ওয়ার্ডপ্রেস কি? ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি “CMS” কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম।

আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে কোন রকম কোডিং দক্ষতা ছারাই একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবেন মাত্র ৫ মিনিটে…

ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি করা একদম জলের মত সহজ।

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটাল করার পর আপনার চাহিদা অনুযায়ী থিমস এবং প্লাগিন ইন্সটাল করতে হবে, ব্যাস তাহলেই আপনার ওয়েবসাইট তৈরি।

ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে ইনকাম
ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে ইনকাম

ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করতে কতটা দক্ষ হওয়া চাই

কিছুই না, জাস্ট আপনার ইন্টারনেট চালানোর দক্ষতা থাকলেই আপনি ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে টাঁকা ইনকাম করতে পারবেন।

হ্যাঁ আবার মনে করবেন না, এই কাজ টি করতে হলে আপনাকে অনেক বড়ো মাপের ডেভেলপার হতে হবে, অন্যথায় এই কাজ আপনাকে দিয়ে হবে না।

না আপনার শুধু ইন্টারনেট চালানোর জ্ঞান থাকলেই হবে।

তবে হ্যাঁ মোবাইল ফোন দিয়ে এই কাজ টি করা পসেবল নয়।

হ্যাঁ মোবাইল দিয়েও পসেবল, তবে মোবাইল দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করতে গেলে বেশ ঝামেলার মাঝে পড়তে হতে পারে।

তো এই আর কি, আপনার অভাবে আর কিছু লাগবে না, মানে খুব বড় ধরনের কোন রেস্ট্রিকশন নেই, যেমন এটা না হলে এই কাজ টি করা পসেবল না, এরকম কিছু নেই।

এই কাজ টি কিভাবে পেতে পারবেন ?

আপনি নিশ্চয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেস গুলির সাথে পরিচিত; যেমন ” freelancer.com, fiver.com, upwork.com,peopleperhour.com” আপনি এসকল প্লাটফরমে গিয়ে একটু খুঁজে দেখুন।

ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন কি, এবং এই ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে লোকে কিভাবে টাকা ইনকাম করছে।

আপনার সুবিধার্থে আমি আপনাকে একটু বলে দিতে চাই।

আপনি এসকল প্লাটফরম গুলিতে গিয়ে একটু খোঁজ নিয়ে দেখুন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট মাইগ্রেশন করার জন্য, লোকে কত টাকা দিচ্ছে, অনেক টাঁকা ভাই।

একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট মাইগ্রেশন করার জন্য আপনাকে ৫০০০/১০০০০ টাঁকা পর্যন্ত দিয়ে থাকবে।

এখন আপনার মাথায় স্বাভাবিক ভাবেই একটা প্রস্ন আসতে পারে, আমি যেভাবে বলছি তাতে করে শুনে মনে হচ্ছে কাজ টি খুবই সহজ।

তাহলে কাজ টি যদি সত্যি সহজ হয়ে থাকে; তাহলে এই কাজ টি কেন তারা নিজেরা করে না।

আপনার এই প্রস্নের উত্তর হচ্ছে, অনেকেই আছে যারা এসব টেকনিক্যাল বিষয়ে একটুও পারদর্শী না।

আবার অনেকে এমন আছে যারা এসকল কাজ পারে, কিন্তু সময়ের অভাবে অন্য কে দিয়ে কাজ টি করিয়ে নেয়, আবার অনেকে এমন আছে, যারা মোটেও রিস্ক নিতে চায়না।

দেখা যায় অনেক সময় নিজে থেকে ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করতে গিয়ে যদি কিছু ভুল করে ফেলে তাহলে তো সব শেষ, মূলত এসকল কারনের জন্যই আর কি।

তো এসব দিয়ে আমাদের কি দরকার বলুন ভাই, আমাদের কাজ পেলেই হল, এবং সেখান থেকে টাঁকা ইনকাম করতে পারলেই হল, তাইনা।

এখন আপনাকে যা করতে হবে, এসকল ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেস গুলিতে গিয়ে নিজের একটা প্রোফাইল তৈরি করে নিতে হবে।

এবং নিজের প্রোফাইল টা এমন ভাবে তৈরি করতে হবে যা দেখলে সবাই বুজতে পারে যে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে দেওয়ার কাজ করে থাকেন।

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করবেন

এখন তাহলে সময় চলে এসেছে এই মহামূল্যবান প্রস্নের উত্তর দেওয়ার, দেখুন আমি উপরে যেমন যেমন বলছি যে ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করার জন্য আপনাকে কোন ওয়েবসাইট ডেভেলপার হতে হবে না।

জাস্ট আপনার ইন্টারনেট চালানোর দক্ষতা থাকলেই হবে।

আপনাকে কি করতে হবে এখন? আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে আগে থেকে পরিচিত হয়ে থাকেন তাহলে তো কোন কথাই নেই।

আর যদি আপনি একদম নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আমি আপনাকে পরামর্শ দিবো। আগে কিছুটা দিন সময় দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে পরিচিত হয়ে নিন।

আর ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে পরিচিত বা ওয়ার্ডপ্রেস শেখার জন্য আপনার কোন টাঁকা পয়সা খরচ করতে হবে না।

আপনি এখান থেকে BITNAMI সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করে ইন্সটাল করে নিন আপনার পিসিতে।

আর যদি আপনি ঠিক বুঝে উঠতে না পারেন কিভাবে কি করবেন তাহলে গুগল করে নিন একটু।

যাই হোক এখন কাজের কথায় আসি, ধরে নেওয়া যাক এখন আপনি ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে পরিচিত এবং কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেসে থিম প্লাগিন ইন্সটাল করতে হয় এটা আপনি জানেন।

ব্যাস তাহলেই আপনি এই কাজ টি করার জন্য একদম উপযুক্ত হয়ে গিছেন।

হ্যাঁ আপনি প্লাগিন ব্যবহার করেই ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে দিবেন।

এবং বিনিময়ে টাঁকা ইনকাম করতে পারবেন।

এখন কথা হচ্ছে ঠিক কোন প্লাগিন টা ব্যবহার করে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করবেন? এটা সত্যি খুবই কনফিউজিং প্রস্ন!

কারন ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করার জন্য অনেক প্লাগিন আছে, আপনি কোনটি রেখে কোনটি ব্যবহার করবেন?

এছাড়া আরও ঝামেলা হচ্ছে অনেক প্লাগিন আছে ফ্রী এবং অনেক প্লাগিন পেইড।

আর স্বাভাবিক ভাবেই ফ্রী প্লাগিন গুলি ব্যাবহার করে অনেক বড় বড় ওয়েবসাইট মাইগ্রেশন করা পসেবল না।

তো চিন্তার কোন কারন নেই, আমি আপনার সাথে এমন একটি প্লাগিন শেয়ার করছি যে প্লাগিন টা ব্যাবহার করে খুব সহজেই একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট মাইগ্রেশন করে ফেলতে পারবেন।

তো আমি যে প্লাগিন এর কথা বলছি সেই প্লাগিন টা এটাই, আপনি এই প্লাগিন টা ব্যাবহার করে খুব সহজেই যে কোন ধরনের ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট মাইগ্রেশন করে ফেলতে পারবেন।

প্লাগিন টি এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন, Migrate & Backup WordPress ; আর হ্যাঁ এই প্লাগিন টা কিন্তু সম্পূর্ণ ফ্রী।

এই প্লাগিন টা ব্যাবহার করার জন্য আপনাকে টাঁকা খরচ করতে হবে না।

তো এই ছিল আজকের আর্টিকেল, আপনি দু একদিন নিজে নিজে একটু ঘাটা ঘাটি করলে বুঝে যাবেন কিভাবে কি করতে হয়।

আর এভাবেই আপনি খুব সহজ উপায়ে ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন করে টাঁকা ইনকাম করতে পারবেন।

আপনি যদি ঠিক ভাবে বুঝে উঠতে না পারেন কিভাবে কি করবেন, তাহলে নিচে দেওয়া এই ভিডিও টি দেখে নিন, তাহলে ওয়ার্ডপ্রেস মাইগ্রেশন সম্পর্কে একটি স্পষ্ট ধারনা পেয়ে যাবেন।

কিছুকথা, –

আঙ্গুর ফল টক, কথাটি শুনেছেন নিশ্চয়, এই ব্যাপার টিও ঠিক তেমন।

আপনার মনে হতেই পারে এই কাজ তো কত লোকে করছে! এই কাজের কি এখন কোন দাম আছে?

বা এই কাজ আমি পারবো কি? এখন দেখুন আপনি যদি না পারেন এটা আপনার বার্থটা ভাই।

কারন যে বা যারা এই কাজ করছে তারা তো করছেই, এবং সেই সাথে যে কাজ করার সে এমনি করবে, এবং যে টাঁকা ইনকাম করার সেও করবে।

কেউ কারো জন্য বসে থাকবেনা।

তো ব্যাপার টা এমন আপনি যদি শুধু ভাবতেই থাকেন যে আপনি করবেন, তাহলে শুধু ভাবতেই হবে

তাই নিজেকে তৈরি করে ফেলুন এবং নিজের কাজের উপর ফোকাস দিন, এবং কাজ টি শুরু করে দিন।

Hi, i'm Akash Golder, Author & founder of LarnBD. A blog that provides authentic information regarding technology, blogging, SEO, online earn money, how to guide & much more.

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *