বর্তমান তারিখ:May 25, 2020

সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক পার্থক্য কী ? আপনার ব্লগের জন্য ভালো কোনটি?

সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক পার্থক্য কী

সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর পার্থক্য কি? এবং আপনার ব্লগ অথবা ওয়েবসাইটের জন্য কোন ট্রাফিক টা ভালো হবে?

আপনার মনে এই প্রস্ন আসতেই পারে, আরে ভাই কোন ট্রাফিক টা ভালো হবে এটার মানে কি?

হা হা হা, ভাই আমি এখানে ভালো হবে বলতে বুঝাতে চেয়েছি,কোন ট্রাফিক থেকে আপনার ব্লগের ইনকাম বেশি হবে এবং আপনার ব্লগ এর রেঙ্ক বৃদ্ধি হবে।

ওয়েল আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর পার্থক্য কি?

এবং আপনার সামনে তুলে ধরব কোন ট্রাফিক আসলে আপনার জন্য বা আপনার ব্লগের জন্য বেস্ট হবে?

তাহলে চলুন এখন মেইন আর্টিকেলের দিকে মুভ করা যাক।

সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর পার্থক্য কি?

ওয়েল তাহলে চলুন প্রথমেই একটু জেনে নেওয়া যাক সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর মাঝে আসলে পার্থক্য টা কি?

ওয়েট তার আগে একটু জেনে নেওয়া যাক এই ট্রাফিক টা আসলে কি??

ট্রাফিক অর্থাৎ ভিসিটর! এই যেমন আপনি এখন এই আর্টিকেল টি পরছেন। আপনি আমার ব্লগের ভিসিটর বা ট্রাফিক বা ব্লগ রাইডার।

তাহলে বুজতে পারছেন এই ট্রাফিক মানে আসলে কি?

এখন ট্রাফিক এটা সম্পর্কে তো বুজতে পারলেন কিন্তু কোন ট্রাফিক টা সব থেকে বেসি ভালো হবে আপনার ব্লগের জন্য?

ওয়েট আপনার ব্লগ এর জন্য সোশ্যাল ট্রাফিক ভালো হবে নাকি অরগানিক ট্রাফিক ভালো হবে, এটা জানার আগে জানতে হবে সোশ্যাল ট্রাফিক কি এবং অরগানিক ট্রাফিক কি?

তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক এই সোশ্যাল ট্রাফিক কি এবং অরগানিক ট্রাফিক কি?

সোশ্যাল ট্রাফিক কি?

ধরুন আপনার ব্লগের একটি আর্টিকেল বা আপনার ব্লগের লিঙ্ক আপনার সোশ্যাল মিডিয়া অর্থাৎ ফেচবুক টুঁইটার ইউটিউব এ শেয়ার করলেন এবং আপনার শেয়ার করা লিঙ্কে কেউ ক্লিক করে আপনার শেয়ার করা কাঙ্কিত আর্টিকেল বা লিঙ্কে চলে আসলো।

তাহলে কি দাঁড়ালো? এটাই যে এটাকেই সোশ্যাল ট্রাফিক বলে, অর্থাৎ আপনি আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনার ব্লগ বা আপনার ব্লগের আর্টিকেলর লিঙ্ক শেয়ার করলেন,এবং আপনার সেই শেয়ার করা লিঙ্কে যখনি কেউ ক্লিক করে আপনার ব্লগে আসবে তখন ওইটা সোশ্যাল ট্রাফিক হয়ে যাবে।

ওয়েল তাহলে আপনি বুজতে পেরেছেন যে সোশ্যাল ট্রাফিক কাকে বলে? এবার চলুন অরগানিক ট্রাফিক কি এটা জেনে নেওয়া যাক। কিভাবে আপনার ব্লগে ফ্রীতে ট্রাফিক বা ভিসিটর বাড়াবেন?

অরগানিক ট্রাফিক কি?

অরগানিক ট্রাফিক বলতে বুঝায়, ধরুন গুগল থেকে কেউ সার্চ করে আপনার ব্লগে আসলো। আর জখনি কেউ গুগল থেকে সার্চ করে আপনার ব্লগে আসবে তখন ওইতাকেই বলা হয়ে থাকে অরগানিক ট্রাফিক।

তাহলে ভাই বুজতে পারলেন তো অরগানিক ট্রাফিক কি? এবং অরগানিক ট্রাফিক বলতে আসলে কি বুঝায়?

এখন আপনি যদি একদম নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনার মনে এই প্রশ্নটি আসতেই পারে যে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ট্রাফিক কিভাবে আনতে হয় এটা তো জানি, কিন্তু গুগল থেকে অরগানিক ট্রাফিক কিভাবে আনব।

ওয়েল গুগল থেকে কিভাবে আপনার ব্লগে অরগানিক ট্রাফিক আনবেন তার উপর আমি আলাদা করে একটি আর্টিকেল পাবলিশ করবো।

সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর পার্থক্য কি?

এখন সময় হয়েছে এটা জানার যে সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর মাঝে আসল পার্থক্য টা কি?

দেখুন সোশ্যাল ট্রাফিক আনাটা খুব বেশি কষ্টের কিছু না, আপনি চাইলেই আপনার ফেচবুক ইউটিউব বা অনন্যা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে আপনার ব্লগে ট্রাফিক আনতে পারবেন।

কিন্তু গুগল থেকে ট্রাফিক আনতে হবে আপনাকে ভালো করে এসইও করতে হবে।

আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে থাকেন তাহলে ওয়ার্ডপ্রেস এর এসইও করার জন্য খুব জনপ্রিয় কিছু প্লাগিন আছে, যে প্লাগিন গুলা ব্যবহার করার ফলে আপনি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইট এর এসইও অনায়াসে করে ফেলতে পারবেন।

আর যদি আপনি গুগল এর ফ্রী প্লাটফ্রম ব্লগার ব্যবহার করেন সেক্ষেত্রে আপনাকে মেনুয়ালি এসইও করতে হবে।

এখন মুল প্রসঙ্গে আসি সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর পার্থক্য কি?

পার্থক্য এটাই সোশ্যাল ট্রাফিক আনা খুব বেসি ঝামেলা দায়ক না আপনি চাইলেই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে টাকা দিয়ে বুস্ট করে আপনার ব্লগের জন্য ট্রাফিক আনতে পারবেন। কিন্তু অরগানিক ট্রাফিক আনতে গেলে আপনাকে অনেক কস্ট করতে হবে, এসইও করতে হবে, কেবল তাহলেই আপনি গুগল থেকে অরগানিক ট্রাফিক আনতে পারবেন।

আর এটাই হচ্ছে সোশ্যাল ট্রাফিক এবং অরগানিক ট্রাফিক এর পার্থক্য?

কোন ট্রাফিক টা আপনার ব্লগের এর জন্য ভালো হবে?

ওয়েল এটা ডিপেন্ড করে আপনি কোন ফিল্ডে কাজ করছেন? আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে ব্লগ করেন সেক্ষেত্রে আপনার জন্য সোশ্যাল ট্রাফিক সব থেকে ভালো হবে।

আর যদি আপনি ব্লগিং ফিল্ডে কাজ করেন অর্থাৎ আপনি ব্লগিং করেন, এবং গুগল এডসেন্স নিয়ে কাজ করেন তাহলে আপনার জন্য অরগানিক ট্রাফিক বেস্ট। তার কারন অরগানিক ট্রাফিক আপনার ব্লগে জত বেসি আসবে আপনার গুগল এডসেন্স থেকে তত বেসি ইনকাম হবে, এবং সেই সাথে সাথে আপনার ব্লগ এর রেঙ্ক ও বৃদ্ধি হবে।

উদাহরণ দিয়ে বলি ধরে নেওয়া যাক আপনার ব্লগে প্রতিদিন এক হাজার সোশ্যাল ট্রাফিক আসছে।

এবং ওই এক হাজার সোশ্যাল ট্রাফিক থেকে, আপনার গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম হচ্ছে ২ ডলার।

এবার আপনার ব্লগে যদি ওই এক হাজার অরগানিক ট্রাফিক আসে, তাহলে আপনার গুগল এডসেন্স থেকে কম করে ৪/৫ ডলার ইনকাম হবে।তাহলে বুজতে পারছেন অরগানিক ট্রাফিক কেন আপনার ব্লগের জন্য ভালো হবে।

এছারা যদি আপনার ব্লগে সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বেসি ট্রাফিক আসে তাহলে,

গুগল এর চোখে আপনার ব্লগ স্পাম হিসাবে ধরা হয়ে থাকে, এবং আপনার ইনকাম ও তুলনামুলক ভালো অনেক কমে যাবে।

আর এই জন্যই আপনি যদি একজন ব্লগার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য অরগানিক ট্রাফিক খুব ভালো হবে।

তাহলে মূলকথা কি? মূলকথা এটাই আপনি যদি একজন ব্লগার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য অরগানিক ট্রাফিক ভালো হবে, আর আপনি যদি মার্কেটিং টাইপ এর ব্লগার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য সোশ্যাল ট্রাফিক ভালো হবে।

এই আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার কোন মতামত থাকলে বা কিছু জানার থাকলে নিচে আপনার মন্তাব ড্রপ করতে পারেন।

ধন্যবাদ এতক্ষণ সাথে থাকার জন্য, টা, টা ????????

আপনিও কি আমার মত টেক পোকা, আপনারও কি নতুন নতুন টেকনোলজি বিষয়ে জানতে ভালো লাগে? তাহলে বন্ধু আপনি একদম সঠিক জায়গাতে এসেছেন, আমি এখানে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন টেক বিষয় নিয়ে আলোচনা করি, এবং টেকনোলজির জটিল টার্ম গুলা আপনার সামনে জলের মত সহজ করে উপস্থাপন করি...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *