ব্যাকলিংক কি? কিভাবে Backlink তৈরি করবেন? Guideline

ব্যাকলিংক কি

ব্যাকলিংক কি? ও কিভাবে সঠিক নিয়মে ব্যাকলিংক তৈরি করবেন? দেখুন বর্তমান সময়ে সঠিক নিয়মে ব্যাকলিংক তৈরি করে নিতে পারলে আপনি অধিক লাভবান হতে পারবেন।

তবে, তার মানে একদম এমন নয়। ইচ্ছা মত, করে বাজে ভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করে নিবেন।

ব্যাকলিংক তৈরি সম্পর্কিত অনেকের মাঝে এখনও প্রচুর ভুল ধারনা রয়েছে। এবং এমন কিছু,কিছু ভুল ধারনা রয়েছে, যার বাস্তবিক অর্থে কোন মানেই নেই।

নতুন অনেকেই রয়ছে তারা কেবল ২০১২/২০১৪ তে ব্যবহারিত ফর্মুলা কাজে লাগিয়ে আজও ব্যাকলিংক তৈরি করে চলেছে।

বর্তমান সময়ে সঠিক নিয়মে যদি ব্যাকলিংক তৈরি করে নেওয়া যায়। তবে তা আপনার সাইটের জন্য খুবই ভাল প্রমাণিত হতে পারে।

তবে এই সব কিছু সম্পর্কে জানবার জন্য, আপনাকে সম্পূর্ণ আর্টিকেলর সাথে থাকতে।

তো বুজতেই পারছেন, আজ আমরা ব্যাকলিংক কি? ও কিভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করতে হয়, তা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিব।

ব্যাকলিংক কি?

ব্যাকলিংক অর্থাৎ এক প্রকার বহিরাগত লিংক। যা অন্য কোন ব্লগ/ ওয়েবসাইট হতে আপনি পেয়ে থাকেন। অর্থাৎ ব্যাকলিংক হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যা একটি ব্লগ থেকে অন্য ব্লগের সংযোগ স্থাপন করে।

এবং গুগল সহ অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন এই সম্পূর্ণ প্রসেস কে ব্যাকলিংক বলে আখ্যায়িত করে থাকে।

আপনার সাইটের লিংক যত বেশি বহিরাগত সাইটের সাথে সংযোগ স্থাপন করবে, আপনার ব্যাকলিংক সংখ্যা তত বেশি কাউন্ট করা হবে।

এবং আপনি যত বেশি ব্যাকলিংক তৈরি করে নিতে পারবেন। search engine bot গুলো তত বেশি আপনার সাইট crawle করবে।

কেন ব্যাকলিংক তৈরি প্রয়োজন?

ব্যাকলিংক তৈরির প্রয়োজন অনেক। কেবল আপনার নতুন ব্লগ সাইট হয়ে থাকলে আপনি ভাল backlink তৈরি করে অনেক লাভবান হতে পারবেন।

উল্লেখ্যঃ-

  • #Fast Index:- ভাল ব্যাকলিংক তৈরি করে নিতে পারলে অনেক দ্রুত আপনার ব্লগের কন্টনেট search engine গুলোতে index করিয়ে নিতে পারবেন।
  • #Rangking:- অধিক ভাল ব্যাকলিংক আপনাকে search engine এ প্রথম পৃষ্ঠায় র‍্যাংক করিয়ে দিতে পারে।
  • #More organic traffic:- হ্যাঁ, আপনার তৈরি ব্যাকলিংক কোয়ালিটি ভাল হলে আপনি search engine থেকে প্রচুর organic traffic পেতে পারবেন।

তাহলে আশা করছি, আপনি বুজতে পেরেছেন কেন ও কি জন্য ব্যাকলিংক তৈরি অত্তাধিক প্রয়োজন।

ব্যাকলিংক কত প্রকার ও কি কি?

সাধারনত অনেকেই মনে করে থাকবেন ব্যাকলিংক দু প্রকার do-follow backlink এবং no-follow backlink. তবে এততুকুই জানলে চলছে না।

আপনাকে ব্যাকলিংক এর প্রকার ও ভেদাভেদ সম্পর্কে জানতে হবে। কেবল তবেই আপনি সঠিক নিয়মে ব্যাকলিংক তৈরি করে নিতে পারবেন।

#1:- External link

যখন আপনি আপনার ব্লগ থেকে বহিরাগত কোন ব্লগের লিংক শেয়ার করছেন তখনই তা হচ্ছে External link.

আপনি এই প্রক্রিয়া অবলম্বন করে বহিরাগত লিংক কে do-follow tag অথবা no-follow tag বা sponsor tag ব্যাবহারের মাধ্যমে search engine কে বুঝিয়ে দিতে পারবেন। আপনি আসলে বহিরাগত লিংক টি কিভাবে ব্যবহার করছেন।

#2:- Internal links

Internal link অর্থাৎ নিজেদের ব্লগের থাকা অন্যান্য লিংক সমুহ। আরও সহজ করে বললে আপনার ব্লগের অন্যান্য যে কনটেন্ট/আর্টিকেল গুলো রয়েছে সে গুলোর লিংক।

এবং বর্তমানে Internal link সঠিক ভাবে ব্যবহার করে আপনি অনেক লাভবান হতে পারবেন। গুগল সহ অন্যান্য search engine গুলোতে আপনি সঠিক ভাবে Internal link ব্যবহার করতে পারলে অনেক organic traffic পেতে পারবেন।

#3:-Low–quality backlink

যখন আপনি বাজে অথবা আপনার টপিক থেকে বাইরে গিয়ে কোন এক ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক তৈরি করছেন তখন তা হয়ে যাচ্ছে low–quality backlins.

যদি আপনি আপনার ব্লগের জন্য এমন খুব করে low–quality backlink তৈরি করে চলেছেন তবে তা থেকে আপনি কিছু মাত্র উপকৃত হতে পারবেন না।

#4:- High-quality backlink

যখন আপনি অধিক domain authority রয়েছে এমন ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক তৈরি করছেন তখন তা হচ্ছে High-quality backlink.

এবং যদি আপনি অধিক domain authority রয়েছে এমন সাইট থেকে ভাল করে ব্যাকলিংক তৈরি করে নিতে পারেন। তবে তা হতে পারে আপনার ব্লগের জন্য খুবই ভাল।

#5:- Link juice

যখন আপনি আপনার ব্লগের জন্য অন্যান্য ব্লগ বা ওয়েবসাইট হতে do-follow backlink তৈরি করে থাকবেন। তখন search engine crawle বা bot আপনার তৈরি কাঙ্ক্ষিত লিংকে একটু বেশি প্রাধান্য দিবে ও এক প্রকার Link juice পাস করবে।

যা আপনার ওয়েবসাইটের domain authority increase সহ search engine থেকে organic traffic পেতে খুব ভাবে সাহায্য করবে।

#6:- No–follow backlink

অর্থাৎ এমন লিংক যেখানে no-follow tag refer করা হয়েছে। সাধারনত no-follow backlink খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ নয় আপনার জন্য।

তবে কিছু খেত্রে no-follow backlink তৈরি করে নেওয়া খারাপ কিছু নয়।

আরও কিছু সহজ করে বললে যখন আপনি অন্যান্য ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে কমেন্ট করবার মাধ্যমে যে backlink পেয়ে থাকেন। তার সব গুলই হচ্ছে no-follow backlink.

#7:- Do-follow backlink

যখন কোন লিংক কে Do-follow tag refer করা হয়ে থাকে। তাকেই Do-follow backlink বলা হয়ে থাকে।

এমন সব থেকে কার্যকারী হচ্ছে এই Do-follow backlink. আপনি আপনার ব্লগের জন্য যত বেশি Do-follow backlink তৈরি করে নিতে পারবেন আপনি ততই search engine থেকে organic traffic পেতে পারবেন।

ব্যাকলিংক তৈরি নিয়ে ভুল ধারনা

এখনও এমন অনেকে রয়েছে তারা মনে করে থাকে। ইচ্ছা মত অন্য ব্লগ থেকে কমেন্ট করে ব্যাকলিংক করে নেওয়া যাবে।

তবে যদি আপনিও এমন ধারনা পোষণ করে থাকেন। তাহলে আপনাকে জানিয়ে রাখি এটা সম্পূর্ণ ভুল ও অনেক বড় ভুল ধারনা।

আপনি জানেন কি no-follow link এর সুচনা হয়েছে শুধু মাত্র এই ব্লগ কমেন্ট থেকে backlink তৈরি না করবার জন্য।

আবার অনেকে এমন রয়েছে তারা এখনও অনেক পুরানো পদ্ধতি অবলম্বন করে চলেছে।

যেমন Directory submission sites থেকে ব্যাকলিংক তৈরির বার্থ প্রচেষ্টা। আপনাকে বলে রাখি যখন search engine বর্তমান সময়ের মত intelligent ছিল না তখন Directory submission sites গুলোর জনপ্রিতা প্রচুর রকম ছিল।

কিন্তু বর্তমানে Directory submission sites থেকে ব্যাকলিংক তৈরি বোকামি ছাড়া আর কিছুই নয়।

যদি আপনি Directory submission sites ব্যবহার করে অধিক ব্যাকলিংক তৈরি করে থাকছেন। তবে তা নিজের অজান্তেই ভুল করে যাচ্ছেন।

যদি প্রচুর Directory submission sites গুলোতে গিয়ে আপনার ব্লগ submit করছেন তবে আপনার ওয়েবসাইটের spam score বাড়িয়ে নেওয়া ছাড়া আর কিছুই হবে না।

এবং সর্বদা চেষ্টা করবেন trusted ও high domain authority ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক তৈরি করতে। কেবল তবেই ভাল কিছু হবে।

এবং কিছুদিন পর পর নিজের ব্যাকলিংক সংখ্যা চেক করতে থাকবেন। অনেক সময় আপনার competitor আপনার ওয়েবসাইটের জন্য Low–quality backlink তৈরি করে দিতে পারে।

এমন টা আমার সাথে হয়েছে। তবে যদি আপনি বুজতে পারেন আপনার ব্লগে অনেক বেশি spam score বেড়ে চলেছে ও Low–quality backlink পাচ্ছেন আপনি অপরিচিত ওয়েবসাইট থেকে।

তবে আপনি গুগল কে জানিয়ে এই সমস্যার সমাধান পেতে পারবেন।

আপনি যে যে ওয়েবসাইট থেকে ব্যাকলিংক না পেতে চান, তার একটি লিস্ট তৈরি করে Google disavow links tool জমা করে দিয়ে সমস্যার সমাধান পেতে পারেন।

কিভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করবেন?

ব্যাকলিংক তৈরির পূর্ব পরিচিত যত সহজ পদ্ধতি আপনার জানা রয়েছে তা পারলে না করবার চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন ব্যাকলিংক তৈরি খুব সহজ কিছু বিষয় নয়।

সঠিক ভাবে ব্যাকলিংক তৈরিতে বেশ বেগ পেতে হয়। তবে কিছু সেরা পদ্ধতি রয়েছে যা ব্যাবহারের মাধ্যমে আপনি High-quality backlink তৈরি করে নিতে পারবেন।

নিচে সঠিক নিয়মে ব্যাকলিংক তৈরি সম্পর্কে বিস্তারিত বলা হচ্ছে।

#1:- Write great article

যদি আপনি এমন আর্টিকেল তৈরি করছেন যা আপনার পাঠকের জন্য অত্তাধিক কাজের ও informative তবে আপনি কিছু না করেই অন্যর থেকে High-quality backlink পেতে পারবেন।

মনে করুন আপনি এমন আর্টিকেল তৈরি করছেন যা পাঠকের চাহিদা অনুয়াজি সব কিছু সম্পর্কে বিস্তারিত সুন্দর ভাবে বলা হয়েছে।

তখন এমন অবস্থায় এমনিতে অন্যরা তাদের ব্লগে বা ওয়েবসাইটে আপনার সাইট refer করে থাকবে।

তাই জন্য সর্বদাই চেষ্টা করুন informative আর্টিকেল তৈরি করবার।

কেবল শুধু তাই নয়, আপনি যত বেশি informative way তে নিজের কনটেন্ট তৈরি করতে পারবেন search engine গুলো আপনাকে তবে বেশি organic traffic দিতে থাকবে।

#2:- Question and answer sites

আপনি question and answer sites ব্যবহার করে নিজের ব্লগের জন্য High-quality backlink তৈরি করে নিতে পারবেন।

আপনি Quora মত question and answer sites ব্যবহার করে ব্যাকলিংক তৈরি করে নিতে পারেন।তবে অবশ্যই কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে।

যেমনঃ- কোন প্রশ্নে উত্তর দেওয়ার জন্য জোর পূর্বক নিজের সাইটের লিংক ব্যবহার করবেন না। বা কোন প্রস্নে অত্তাধিক করে লিনের ব্লগের লিংক শেয়ার করবেন না।

এমন করলে আপনি backlink তো পাবেনই বা। উপরন্তু আপনার দেওয়া প্রস্নের উত্তর remove বা আপনার account suspended করে দেওয়ার সম্ভাবনা ও থাকবে।

#3:- Social networking site profiles

আপনি Social networking site গুলোতে গিয়ে একটি profiles তৈরি করেও কিন্তু নিজের ব্লগের জন্য High-quality backlink তৈরি করে নিতে পারবেন।

তবে Social networking site থেকে ব্যাকলিংক পেতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে।

যেমনঃ নিজের নামে তৈরি profile থেকে আপনি যদি ব্যাকলিংক পেতে চান, তবে তা সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে।

সর্বদা চেষ্টা করুন Social networking site গুলোতে আপনার ব্লগের নামে একটি profile তৈরি করে নিয়ে অতপর ব্যাকলিংক তৈরি করুন।

#4:- Guest posting

আমার মতে High-quality backlink তৈরি করে নেওয়ার সব থেকে সেরা মাধ্যম হচ্ছে guest posting.

তবে guest posting করে ব্যাকলিংক তৈরি করতে চাইলে আপনাকে কিছু বেগ পেতে হবে।

কারণ guest posting করে backlink পেতে চাইলে আপনাকে high quality content তৈরি করতে হবে, কেবল তবেই অন্যরা আপনাকে তাদের ব্লগে guest posting করে ব্যাকলিংক পেতে দিবে।

guest posting করে ব্যাকলিংক তৈরিতে আমার পরামর্শ থাকবে, অন্যদের সাথে ভাল সম্পর্ক রাখুন তাদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করুন।

যদি আপনি খুব ভাল website authority রয়েছে এমন ব্লগ থেকে guest posting এর মাধ্যমে ব্যাকলিংক পেতে পারেন। তবে তা হবে সেরা high quality backlink.

এবং যদি আপনি এমন ভাবে guest posting করে ব্যাকলিংক তৈরি করছেন। তবে আপনার ওয়েবসাইটের Domain authority সহ search engine গুলোতে প্রচুর ভাল র‍্যাংক পেতে পারবেন।

আমাদের শেষ কথাঃ-

ব্যাকলিংক কি? ও কিভাবে ব্যাকলিংক তৈরি করতে হয়। আমরা তা সম্পর্কে এই আর্টিকেলে বিস্তারিত আলচনা করেছি।

এবং আপনাকে ব্যাকলিংক কি, ও ব্যাকলিংক তৈরি সম্পর্কে একটি সঠিক Guideline প্রদান করবার চেষ্টা করেছি।

আমরা চাইলে আরও কিছু ব্যাকলিংক তৈরির প্রক্রিয়া এখানে যুক্ত করতে পারতাম। তবে তা এ জন্যই করা হয়নি, কারণ সেসব প্রক্রিয়া এক কথায় মূল্যহীন বা useless.

আমরা আশা রাখছি, এই আর্টিকেল থেকে ব্যাকলিংক সম্পর্কে আপনি অনেক কিছু জানতে পেরেছেন।

এবং যদি আপনার ব্যাকলিংক সম্পর্কিত আরও কিছু জানবার থাকে, বা এই আর্টিকেল সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন থাকে তবে তা নিচে কমেন্ট করে আমাদের জানিয়ে দিতে পারেন।

Hi, i'm Akash Golder, Author & founder of "LarnBD", A blog that provides authentic information regarding technology, blogging, SEO, online earn money, how to guide & much more.

2 thoughts on “ব্যাকলিংক কি? কিভাবে Backlink তৈরি করবেন? Guideline”

  1. আপনার লেখাটি অনেক ভালো হয়েছে । এতে অনেকে উপকৃত হবে । আশা করছি আগামিতে আপনি আরও অনেক সুন্দর সুন্দর লেখা উপহার দিবেন । আমার একটি নিউজ রিলেটেড ব্লগ সাইট আছে । roadtohelp787.com এই সাইটে ঘুরে দেখার জন্য নিমন্ত্রন রইল । ধন্যবাদ ।।

    Reply
    • ধন্যবাদ! আপনার ব্লগ টি ঘুরে দেখলাম, বেশ ভাল লেগেছে।

      Reply

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *