গুগল থেকে আয় করার নিশ্চিন্ত ৩ টি রাস্তা – আজই ট্রাই করুন!

গুগল-থেকে-আয়-করার-নিশ্চিন্ত-৩-টি-রাস্তা-আজই-ট্রাই-করুন

গুগল থেকে আয় করার নিশ্চিন্ত উপায়, হুম ঠিকই পড়েছেন আপনি। দেখুন যেহেতু গুগল কে নিয়ে কথা হচ্ছে তো আপনি শতভাগ নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন যে এখান থেকে টাকা ইনকাম করার গল্প টা ১০০% সত্য। গল্পটা এমন নয় যে আপনাকে কেউ বলে দিচ্ছে নিশ্চিন্তে উপায়ে মাসে ইনকাম করুন এতো এতো টাকা – আর সব কিছুর শেষে আপনি গিয়ে দেখছেন, ওহ শিট এতোদিন ধরে আমি এই ফালতু কাজের সাথে নিজেকে জড়িত রেখেছিলাম!

ওয়েল, কি মনে হচ্ছে আজকের গল্প টা অনেক ইন্টারেস্টিং হতে চলেছে রাইট? ইয়া ব্রো আজকের গল্পটা অনেক বেশি ইন্টারেস্টিং হতে চলেছে, সো সম্পূর্ণ আর্টিকেলের সাথেই থাকুন ও আজকের আর্টিকেলর মজা উপভোগ করুন।

আপনিও গুগল কে কাজে লাগিয়ে বেটার কিছু করুন!

উপরে হেডলাইন দেখে আপনার মাথায় কি এই প্রস্ন টা ঘোরাঘুরি করছে, যে গুগল কে কাজে লাগিয়ে অর্থাৎ এই কথার মানে টা কি? ওকে চলুন তাহলে আগে এই প্রস্নের উত্তর দেওয়া যাক।

দেখেন গুগল যেভাবে আমাকে, আপনাকে কাজে লাগিয়ে অর্থ উৎপাদন করে চলেছে আপনিও সেইম কাজ টাই করতে পারেন। তবে ওদিকে গুগল আপনাকে কাজে লাগায় আর এদিকে আপনি গুগল কে কাজে লাগাবেন।

যেমন গুগল এর সব কিছুই কিন্তু এই আপনি, আমি – আমরা ছাড়া কিন্তু গুগল কিছুই না। তার কারন আমাদের কিছু প্রয়োজন হলেই গুগল এর কাছে গিয়ে তা সার্চ করছি। এবং আমাদের সেই সার্চ করা ইনফরমেশন এর উপর ভিত্তি করে গুগল আপনার কাছে পৌঁছে যাচ্ছে।

এবং তারই সুতপাতে আপনাকে গুগল এড দেখাচ্ছে, বা বলা চলে এভাবেই মার্কেটিং করছে। এতো গেলো ছোট্ট একটা উদাহরন মাত্র এরকম আরও অনেক গল্প আছে। সেগুলা না হয় অন্য কোন আর্টিকেলর জন্য তুলে রাখলাম। অন্য কোন এক আর্টিকেলে শেয়ার করব যে গুগল কিভাবে টাকা ইনকাম করে।

এখন মুল টপিকে ব্যাক করি – আপনি কিভাবে গুগল কে কাজে লাগিয়ে বেটার কিছু করবেন। ওয়েল, দেখুন গুগল কে কাজে লাগিয়ে অর্থাৎ আপনি গুগল এর তৈরি প্লাটফরম গুলিকে কাজে লাগিয়ে মারাত্মক বেটার কিছু করতে পারেন।

এবং সেগুলাই আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরব ও একদম নিপুন ভাবে এক্সপ্লেন করব যে কিবাবে আপনি গুগল এর তৈরি প্লাটফ্রম গুলিকে কাজে লাগিয়ে অনেক ভালো কিছু করতে পারবেন, উলেক্ষ টাকা ও ইনকাম করতে পারবেন।

বর্তমানে অনলাইন থেকে আয় একটা নতুন ট্রেন্ড

ইয়া, এটা শতভাগ সত্য কথা বর্তমান সময়ে অনলাইন থেকে আয় মানে নতুন একটা ট্রেন্ড অর্থাৎ সবাই কেবল শুধু এখন অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চায়। কিন্তু এই গল্পের সত্যতা নিয়ে তেমন কেউ মাথা ঘামাই’ই না।

সবাই শুধু টাকার পিছে ভাবে, ফলে অনলাইন থেকে ইনকাম কোন কালেই হয়ে উঠে না। দেখুন সব কিছু বা সব কাজের একটা বৈশিষ্ট্য আছে, আপনার কাছে যদি আপনি যে কাজ টি করবেন সেই কাজের প্রোপার নলেজ না থাকে তবে আপনি কিভাবে সেই কাজ টি বেটার ওয়েতে কমপ্লিট করবেন।

আর, হ্যাঁ আপনার কাছে প্রোপার নলেজ থাকুক বা না থাকুন এটা মেটার করে না, মেটার করে এটাই যে যে কোন একটা ছ্যাঁচড়া ওয়েতে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে হবে।

ভাই, আপনি যদি অনলাইনে নিজের ক্যারিয়ার তৈরির স্বপ্ন দেখেন তাহলে আপনাকে প্রোপার নলেজ এর সাথে এই ভার্চুয়াল ফিল্ডে নামতে হবে – কেননা এখানে আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী অনেক অনেক বেশি এখন।

মুলুত আমাদের দেশে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করাটা অনেকের কাছে একটা দুঃস্বপ্ন তার প্রধান কারন হচ্ছে প্রোপার নলেজ না থাকা, বা প্রোপার নলেজ না নিয়ে এই ফিল্ডে এসে যাওয়া। নো ব্রো এভাবে কিভাবে চলবে আগে আপনি আপনার কাজের উপর বিশেষ দক্ষতা অর্জন করুন তারপর মাঠে নামুন।

এখন আপনি প্রস্ন করতে পারেন যে আপনি যদি মাঠে না নামি তাহলে খেলা শিখব কিভাবে?

এখানেই তো আপনার বৈশিষ্ট্যতা, দেখুন আমাদের মাথায় অনলাইন থেকে আয় টপিক টা এমন ভাবে কাজ করে যাতে করে মনে হয় অনলাইন থেকে আয় কোন ব্যাপার’ই না, এর থেকে সহজ কাজ দুনিয়ার পরে আর কিছুই নেই।

নো, অনলাইনে আয় করার থেকে কঠিন কাজ আর কিছুই নেই ব্রো। বাট হ্যাঁ, আপনার ক্ষেত্রে এই অনলাইনে আয় করার গল্পটা ভিন্ন হতে পারে যদিনা আপনি প্রোপার নলেজ এর সাথে অনলাইনে আসেন।

উদাহরন দিচ্ছি কিছু!

  • কাউকে দেখে – মানে আপনি ইউটিউব বা ব্লগ কোথায় একটা দেখলেন যে অনলাইন থেকে এই করলে অনেক টাকা ইনকাম করা সম্বব, আর আপনি প্রোপার রিসার্চ ও নলেজ ছাড়া সেই কাজে নেমে পড়লেন।
  • সবাই পারলে আমিও পারব – নো ব্রো, সবাই পারলে আপনিও পারবেন এমন কোন কথাই নাই। কারন সব কাজ সবার জন্য না, উলেক্ষ আপনি যদি সেই কাজের উপর অনেক বেশি সিরিয়াস হয়ে থাকেন তবে আপনাকে কেউ পিছে ফেলতে পারবে না।
  • রাতারাতি বড়লোক্স হয়ে যাওয়া – মারাত্মক বাজে একটি কারন, আর এই কারনের জন্যই আমার নতুন অনেক ভাই বোনেরা অনলাইনে বেটার কিছু করে নিজেদের ক্যারিয়ার বিল্ড করতে চায়। বাট হ্যাঁ, সত্য এটাই রাতারাতি অনলাইনে কিছু করে বড়লোক্স হওয়া যায় না, + এখানেও আপনার প্রোপার নলেজ এর প্রয়োজন।
  • এতো অনেক সহজ কাজ – ভাই আমিও ২০১৫ সালের দিকে এমনই ভাবতাম যে অনলাইনে ইনকাম করাটা মারাত্মক সহজ কাজ, কোন ব্যাপার;ই না এটা। বাট ৬ মাস যাওয়ার পর বুজতে পারি এই ফিল্ডে নিজের ক্যারিয়ার বিল্ড করতে হলে, নিজেকে গুছিয়ে তারপর এই ফিল্ডে নামতে হবে। তা না হলে এখানে কোন কিছুই সম্বব না।
  • এক কথায় কপি পেস্ট করব – ভাই বিশ্বাস করুন আপনি অনলাইন ভিত্তিক যে কাজ’ই করুন না কেন আপনি যদি কপি পেস্ট করার কথা চিন্তা করে মাঠে নামেন তাহলে আপনি কিচ্ছু করতে পারবেন না। একদম কিছুই না।
  • মোড়াল অফ দা স্টরি – আপনাকে আপনার কাজের মাঝে এক ধরনের পারফেকশন নিয়ে আসতে হবে এবং আপনাকে প্রোপার নলেজ এর সাথে আগাতে হবে, কেবল তবেই আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম ও অনলাইনে নিজের ক্যারিয়ার বিল্ড করার কথা চিন্তা করতে পারবেন।

এই এতোগুলা কথা বলার কারন টা কি?

আমি প্রথমেই আপনাদের যেমন টা বলেছিলাম যে আমি আপনাদের সামনে একদম সব কিছু নিপুন ভাবে এক্সপ্লেন করে বুঝিয়ে বলব, জাস্ট বিকজ সেই কারনের জন্যই আপনাদের উদ্দেশ্যে এতো কিছু বলা। এভাবে না বলে আমি যদি আপনাদের সামনে জাস্ট কিভাবে গুগল থেকে নিশ্চিন্তে আয় করবেন এই বিষয় টা বলতাম তাহলে আশাকরি, সব কিছু একদম মাথার উপর দিয়ে যেত অনেকের।

অর্থাৎ, আপনি অনলাইনে ভিভিন্ন প্লাটফ্রম যেমন ব্লগ, ইউটিউব চ্যানেল ইত্যাদি যায়গায় দেখবেন অনলাইনে ইনকাম করা নিয়ে অনেক টাইপ এর গাইডলাইন পেয়ে যাবেন, বাট যে বিষয় টা খেয়াল করবেন তা হচ্ছে আপনাকে সঠিক ভাবে প্রোপার গাইডলাইন দেওয়া হচ্ছে না। আপনাকে জাস্ট রাস্তা গুলি দেখিয়ে দেওয়া হচ্ছে, বাকি টা সব কিছু আপনার উপর।

কিন্তু লার্নবিডি’র উদ্দেশ্য ভিন্ন, আমরা সর্বদাই আমাদের পাঠকের কথা মাথায় রেখেই আর্টিকেল লেখার চেস্টা করি, যাতে আমাদের লেখা আর্টিকেল পড়ে আমাদের ব্লগের পাথক-গন বিষয় টা খুব ভালো করেই বুজতে পারে ও নিজের অনলাইন ক্যারিয়ার একটা বেটার ওয়েতে বিল্ড করতে পারে।

গুগল থেকে আয় করার নিশ্চিন্ত উপায়

অনেক কথাই হল এখন চলুন যেনে নেওয়া যাক গুগল থেকে আয় করার নিশ্চিন্ত উপায় গুলা।


“ব্লগিং”


হ্যাঁ, আপনি গুগল এর তৈরি ফ্রী ব্লগিং প্লাটফরম ব্লগার দিয়েই নিজের অনলাইন যাত্রা শুরু করে দিতে পারেন, আপনি যদি একদম নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য গুগল এর তৈরি প্লাটফরম ব্লগার ব্যবহার করেই অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ওয়েট, গুগল এর ফ্রী প্লাটফরম ব্লগার এটা তো বুজলাম কিন্তু আমি যদি ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে ব্লগ তৈরি করি তাহলে কিভাবে গুগল থেকে ইনকাম করতে পারব।

হুম, আচ্ছা বলুন তো কিভাবে? হুম, আমি বলে দিচ্ছি আপনি গুগল এডসেন্স কে কাজে লাগিয়ে ব্লগ থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। দেখুন এটা ম্যাটার করে না যে আপনি কি “CMS Content management system” ব্যবহার করে ব্লগ বা ওয়েবসাইত তৈরি করছেন।

আপনি যে কোন একটি পপুলার “CMS” ব্যবহার করে তার সাথে এডসেন্স কানেক্ট করে গুগল থেকে আয় করতে পারেন, কারন এদসেন্স গুগল এর প্রোডাক্ট। সো এখানে এটা মোতেই ম্যাটার করে না যে আপনাকে গুগল এর তৈরি প্লাটফ্রম ব্লগার’এর সাথেই যেতে হবে।

আপনার বাজেট থাকলে একটি ডোমেইন হোস্টিং নিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস আপনার ব্লগ তৈরি করে অনলাইন ইনকাম বা অনলাইনে নিজের ক্যারিয়ার ব্লিড করার কাজে নেমে পড়তে পারেন।

আর আমি প্রথমে গুগল এর তৈরি ফ্রী প্লাটফ্রম ব্লগার এর কথা বলছি তার কারন, গুগল এর তৈরি ফ্রী ব্লগিং প্লাটফরম ব্লগার কিন্তু সম্পূর্ণ ফ্রী। আর তা ছাড়া আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আমি আপনাকে প্রথমে টাকা পয়সা খরচ করার পরামর্শ কোন ভাবেই দিব না।

ওই যে আমি একটু আগে আপনাকে উপরে বললাম, প্রোপার নলেজ ও সঠিক চিন্তা ধারার সাথে এই ফিল্ডে আসতে হবে, তো আপনি সেই নলেজ টা গুগল এর তৈরি ফ্রী প্লাটফ্রম ব্লগার ব্যবহার করেও কিন্তু করতে পারেন।

তারপর আপনি যখন বুজবেন যে না এখন আমি ওয়ার্ডপ্রেস মুভ করার জন্য একদম তৈরি তখন আপনি নিজেকে নিজের প্রোপার চিন্তা শক্তির সাথে কাজে লাগিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস মুভ করে নিয়েন।

আর, আমি আজকের আর্টিকেলের টাইটেলেই যেমন টা বলেছি যে গুগল থেকে আয় করুন নিশ্চিন্তে। সো আপনি শতভাগ নিশ্চিন্ত থাকুন যে আপনি যদি ব্লগিং টা নিজের বেস্ট দিয়ে ও বেটার ওয়েতে পরিবেশন করতে পারেন, দেন আপনি একদম নিশ্চিন্ত থাকুন যে আপনি অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন।


ইউটিউবিং


অনলাইনে ইনকাম করার এখন সব থেকে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউব, আর হ্যাঁ এই ইউটিউব ব্যবহার করে কিন্তু আপনি রাতারাতি সেলিব্রেটি ও টাকা ইনকাম করতে পারেন।

শুধু এখানে আপনার থাকা চাই মারাত্মক গুড চিন্তা শক্তি, ওই এখনও যদি সেই ২০১০ সালের ফানি ভিদেও’র কনসেপ্ট মাথায় থাকে, বা আপনি যদি তাই করতে চান তাহলে ইউটিউব আপনার জন্য না।

বাট, হ্যাঁ আপনি যদি সেই ফানি কনসেপ্ট কে এই সময়ের প্রেক্ষাপটের সাথে মিলিয়ে কিছু করতে পারেন, হ্যাঁ তাহলে তা করতে পারেন, তাহলে আপনি ইউটিউব দিয়ে বেটার কিছু করতে পারবেন।

ইউটিউব বিষয় টা মোটেও সহজ না, যেমন, যে কেউ ইচ্ছা করলেই পারবে, আপনাকে আপনার নিজস্ততা দিয়ে সব কিছু করতে হবে ইউনিক কনসেপ্ট থাকতে হবে আমার কাজের মাঝে।

দেখুন উপরে বললাম না ইউটিউব মোটেও সহজ না, বাট সত্যি কথা এটাই যে ব্লগিং থেকে ইউটিউব অনেক বেশি রকম সহজ, কারন আপনার ব্লগিং এর কথা যদি চিন্তা করা হয় তাহলে আপনাকে এক্তি ব্লগ তৈরি করে সেই ব্লগ ভাইরাল করে তাতে পর্যাপ্ত পরিমানে ট্র্যাফিক জেনারেট করাটা সহজ কাজ নয়।

অন্য দিকে ইউটিউব, আপনি যদি বেটার ও ইউনিক কনসেপ্ট নিয়ে ইউটিউবিং শুরু করেন তাহলে আপনাকে ভাইরাল হতে বেশি সময় লাগবে না, আর আপনি একবার ভাইরাল হয়ে যাওয়া মানেই আপনি নিশ্চিন্তে ইনকাম করতে পারবেন।

এবং হ্যাঁ, ইউটিউব ও গুগল এডসেন্স দুই কিন্তু গুগল এর প্রোডাক্ট সো এখানেও আপনি গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন।

অনেকে বলে ইউটিউব আপনাকে দিয়ে হবে না হচ্ছে না, শুনুন ব্রাদার আপনার কাছে যদি কন্টেন্ট থাকে ও আপনি সেই কন্টেন্ট কে ইউনিক ভাবে ইয়উটুবে প্রেজেন্ট করতে পারেন। তাহলে অনলাইনে ইনকাম করাটা আপনার কাছে দুনিয়ার সব থেকে সহজ কাজের ভিতরে একটা হবে। ইউ গট মাই পয়েন্ট???

ডু সামথিং ইউনিক ব্রো। এবং ইউটিউবিং করু করার পূর্বে ইউটিউব কন্টেন্ট তৈরি করার উপরে প্রোপার একটা ধারনা অর্জন করে নিন, তারপর চ্যানেল তৈরি ও ইনকাম এর কথা ভাববেন।

এমন টা করবেন না যে এখানে আপনি আমার আর্টিকেল পড়ছেন পড়া শেষ আপনি চলে গেলেন ইয়উটুবে চ্যানেল তৈরি করতে। নো আগে নিজে তৈরি হন তারপর মাঠে নামুন, মনে রাখবেন এই সময়ে এই ফিল্ডে আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী কিন্তু অনেক, অনেক। এক কথায় সম্পূর্ণ পৃথিবী আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী সো আপ্নাকেও সেই ভাবে প্রতিদ্বন্দ্বীর মুখমুখি হতে হবে।

ইউনিক কনসেপ্ট নিয়ে ইউটিউবে ভিডিও তৈরি করতে হবে, কেবল তবেই আপনি ইয়উটুবে সফলতা পাবেন ও টাকা ইনকাম এসব বিসয়ের কথা চিন্তা করতে পারবেন।


Google Admob


কাজ টা বেশ অনেক তাই কঠিন, কিন্তু অর্থে’র হিসাব করলে এখান থেকেই আপনি অনেক বেশি টাকা জেনারেট করতে পারবেন।

আচ্ছা তার আগে এটা বলে নেওয়া জরুরি “Google Admob” কি? Google Admob হচ্ছে গুগল এর তৈরি এডসেন্স এর মত আর একটি প্লাটফরম।

গুগল এডসেন্স দিয়ে যেমন ওয়েবসাইট, ব্লগ, ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ করা যায়, এবং তার থেকে ইনকাম করা যায়। Google Admob ও গুগল এর তৈরি ঠিক তেমন একটি আপস মনিটাইজ প্লাটফরম।

অর্থাৎ আপনি যে কোন একটি আপস তৈরি বা ডেভেলপ করে, সেই কাঙ্খিত আপস টি “Google Admob” এর মাধ্যমে মনিটাইজ করে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এবং অনেক বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আচ্ছা ইনকাম করার কনসেপ্ট তো বুজলাম ব্রো, বাট আপস তৈরি কিভাবে করব?

ওয়েল, এখানেও তো আপনাকে টাইম দিতে হবে শিখতে হবে বুজতে হবে। ভাই আপনি তো কোন কাজ ঠিক ভাবে না যেনে সেই কাজের থেকে কিছু এক্সপেক্ট করতে পারেন না রাইট?

আপনাকে এই কাজটি অর্থাৎ আপস তৈরি করাটা শিখতে হবে, তারপর আপনার নির্দিষ্ট টপিক ও ইচ্ছা অনুযায়ী আপস তৈরি করতে হবে, এভাবেই আগাতে হবে।

ব্রো সত্যি কথা কি এই কাজ টি মোটেই সহজ কাজ নয়, এই কাজটি করার জন্য আপনাকে প্রচুর সময় ও নিজের মেধা খরচ করতে হবে। তারপর যখন আপনি সম্পূর্ণ ভাবে তৈরি হয়ে যাবেন তখন একটি আপস থেকেই আপনি অধিক থেকে অধিক টাকা ইনকাম করে যেতে পারবেন।

ইভেন আপনি যদি একদম নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনি ভিভিন্ন মার্কেটপ্লেস থেকে আপস তৈরি’র টেম্পলেট কিনে নেয়ে তারপর আপনার ইচ্ছা মত কাস্টমাইজ করে নিজের মত করে আপস তৈরি করে ফেলতে পারেন।

বাট, আপনি যেহেতু নতুন আপনার ওতো বাজেট নেই, আর বাজেট থাকেলও বা কি নতুন অবস্থায় এসব আপস তৈরি’র টেম্পলেট দিয়েও বা আপনি কি করবেন। আপনি তো এর কিছুই বুজবেন না রাইট?

ওয়েল, আপনি লার্নবিডি’র পাঠক আর আপনার জন্য কোন অপরচুনিটি থাকবে না, তা কিভাবে হয়!

আমি আপনাদের সাথে একটি ওয়েবসাইটের সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি যেখান থেকে আপনারা প্রতি সপ্তাহে ফ্রীতে কিছু না কিছু আপস তৈরি’র টেম্পলেট + প্রিমিয়াম ওয়ার্ডপ্রেস ও ব্লগার থিমস এবং ভিডিও অডিও সব কিছুই ফ্রীতে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

আপনারা এই ওয়েবসাইট থেকে ফ্রীতে আপস তৈরি করার টেম্পলেট ডাউনলোড করে তার সাথে যা ইচ্ছা তাই করতে পারেন, অর্থাৎ আমি বলতে চাচ্ছি প্রথম অবস্থায় এভাবেই শিখুন সবকিছু, আর কোন প্রবলেম হলে গুগল বা ইউটিউব তো আছেই। সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন মুহূর্তেই।

এই আর্টিকেল থেকে তাহলে আজ কি শিখলাম?

এই আর্টিকেল লেখার উদ্দেশ্য হচ্ছে অনলাইন থেকে যারা ইনকাম করতে চায়, বা চাচ্ছেন তাদের কে সঠিক পথ, রাস্তা প্রদর্শন করানর। যাতে করে আপনিও কিছুদিন পরে দিয়ে হতাশ না পড়েন এবং এই অনলাইনে নিজের ক্যারিয়ার শক্ত ভাবে বিল্ড করে তার থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

এবং এই আর্টিকেলে আমরা চেস্টা করেছি গুগল থেকে আয় করার নিশ্চিন্ত উপায় গুলি পয়েন্টে পয়েন্টে আপনাকে ধরিয়ে দেওয়ার। আশা করি আজকের এই আর্টিকেল আপনাদের অনেক টা কাজের হবে।

আপনার যদি এই আর্টিকেল সম্পর্কে কোন প্রস্ন থাকে বা আপনার অনলাইন রিলেটেড যদি কোন প্রস্ন থাকে তা নিচে আমাদের কমেন্ট সেকশনে জানাতে পারেন।

হ্যাপি লার্নিং

ইমেজ ক্রেডিট; By Rajeshwar Bachu Via Unsplash

আপনিও কি আমার মত টেক পোকা? আপনারও কি নতুন নতুন টেকনোলজি বিষয়ে জানতে ভালো লাগে? তাহলে বন্ধু আপনি একদম সঠিক জায়গাতে এসেছেন, কেননা আমি এখানে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন টেক বিষয় গুলি নিয়ে আলোচনা করি, এবং টেকনোলজির জটিল টার্ম গুলিকে আপনাদের সামনে জলের মত সহজ করে উপস্থাপন করার চেষ্টা করি।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *