বর্তমান তারিখ:August 12, 2020

ইউটুবে গেমিং চ্যানেল তৈরি করে বেটার কিছু করার পরিকল্পনা শুরু করতে পারেন!

ইউটুবে-গেমিং-চ্যানেল-তৈরি-করে-বেটার-কিছু-করার-পরিকল্পনা-শুরু-করতে-পারেন

সময় টা আসলে এখন এমন; এখন কম বেশি সবাই কেবল অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে চায়! হুম গল্পটা সত্যি বেশ ভালো, কিন্তু ব্যাপার টা মোটেও খুব বেশি সহজ নয়। যে আপনি ইচ্ছা করলেন আপনি অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করলেন ও টাকা ইনকাম হওয়া শুরু হয়ে গেলো। বর্তমান সময়ে অনলাইন থেকে টাকা উৎপাদন করতে চাইলে অবশ্যই বেটার চিন্তা ভাবনার সাথে নিজেকে তৈরি করে তারপর মাঠে নামতে হবে! ওয়েল, আর এ জন্যই আজকের এই আর্টিকেল টি আপনার সাথে শেয়ার করা, এই আর্টিকেলর মাঝে আপনার সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব ইউটুবে একটি গেমিং চ্যানেল তৈরি করে কিভাবে পরিকল্পনা মাপিক কাজ করে অর্থ উৎপাদন করা যেতে পারে! সো, সাথেই থাকুন আর চলুন তাহলে সব টা জেনে আসি!

ইউটুবে গেমিং চ্যানেল তৈরি করে অর্থ উৎপাদন করার পরিকল্পনা

ইচ্ছা করলেই আপনি যদি কিছুটা মেধা ও গুড চিন্তা শক্তি ব্যবহার এর মাধ্যমে অনলাইনে যে কোন কাজ শুরু করতে চান, তাহলে আপনার জন্য সেই কাজ টী করাটা অনেক বেশি কষ্ট-সাদ্ধ কিছুই হবে না! কিন্তু যদি কাউকে দেখে তার থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে কপি পেস্ট শুরু করে দেন। তাহলে মেবি আপনি আপনার গন্তব্যে কখনই পৈছাঁতে পারবেন না! হুম আসলেই তাই; আপনি যদি এখনো সেই ফানি ভিডিও ও ফান রিলেটেড কন্টেন্ট ইউটিউবে আপলোড করতে চান ও ধরে নিয়ে থাকেন এখনো পাবলিক এই কন্টেন্ট খাবে? তাহলে ব্রাদার ইহা আপনার লাইফের সব থেকে বড় ও বাজে ডিচিশন।

চিন্তা শক্তি এখনো কিছুটা আপগ্রেট করতে হবে! নিজের মত করে চিন্তা করতে হবে। হ্যাঁ একদমই তাই! আচ্ছা টপিকে ফিরে আসি আপনি কি খেয়াল করে দেখেছেন এখন ইউটুবে গেমিং চ্যানেল এর কি মারাত্মক রকমের হাইপ চলছে! হুম, নিশ্চয়ই দেখে থাকবেন। বর্তমানে নিজের একটি ইউটুবে গেমিং চ্যানেল থাকা মানে হাতে সোনার ডিম পাড়া রাজ-হংসের সমান। আপনি জেনে অবাক হতে পারেন যারা এই ইউটিউবে লাইভে এসে গেমস খেলে তাদের ইনকাম আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। তো আপনি যদি চান আপনি শুধু ইচ্ছা মত গেমস খেলবেন ও সহজ কথায় তার থেকে অর্থ উৎপাদন করবেন তাহলে আপনার জন্য এই কাজ টির থেকে বেটার চয়েজ আর কিছু হতেই পারে না।

কিন্তু কিন্তু কিন্তু, আপনি এই কথাটা এখন শুনলেন ও কাজ করতে ঝাঁপিয়ে পড়লেন এমন করলে হবে না! আগে থেকে ভাল করে পরিকল্পনা করতে হবে, দেন কাজ করার চিন্তা ভাবনা মাথায় আনতে হবে! বুঝিয়ে বলছি, দেখুন এখন ইউটুবে গেমিং চ্যানেল তৈরি করা আহামরি কোন মারাত্মক কঠিন কাজ না। ইচ্ছা করলেই যখন ইচ্ছা তখন ইউটুবে একটি চ্যানেল তৈরি করা সম্ভব। বাট হে ব্রো, শুধু কি একটা চ্যানেল থাকাটাই যথেষ্ট আপনার জন্য। না অবশই না, চ্যানেল তো থকেতেই হবে পাশাপাশি চ্যানেল এ কন্টেন্ট ও থাকতে হবে! বিষয় টা এরকম না, আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করলেন ও হাবিজাবি যা ইচ্ছা তাই শুরু করে দিলেন। না এরকম মোটেও করা চলবেনা!

প্রথমেই নিজেকে প্রিপায়ার করুন

হ্যাঁ। ব্রাদার সব থেকে প্রথমে নিজেকে নিজের কাজের জন্য বিশেষ ভাবে তৈরি করে নেওয়াটা অতি অবশ্যক; আচ্ছা কিভাবে বুঝিয়ে বলছি – ধরে নিচ্ছি আপনি ইউটুবে একটি গেমিং চ্যানেল তৈরি করে ফেলেছেন এবং এখন আপনার প্রথম কাজ হচ্ছে আপনার গেমিং চ্যানেল থেকে কন্টেন্ট পাবলিশ করা। এবং আপনি তাহাই শুরু করে দিলেন; কিন্তু দেখা গেলো বিষয় টা এমন হয়ে দাঁড়াল আপনি যে গেমস টি খেলছেন তাহা অনেক পুরাতন ব্যাকডেটেড গেমস; এবং সেই সাথে আপনি সেই কাঙ্ক্ষিত গেমস টিটে খুব বেশি পারদর্শীও নন। যদি সিচুয়েশন টা এমন হয় তাহলে আপনি নিজেই চিন্তা করুন আপনি কি আপনার কাজের কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যও স্থানে পৈছাঁতে পারবেন? সহজ কথায় উত্তর – না কখনই পারবেন না!

ভেবে দেখুন আপনি যে কাজ টি শুরু করেছেন সেই কাজের উপর আপনার একটুও দক্ষটা নেই; আর আপনি এখন চাচ্ছেন যে,বা যারা এখন এই গেমিং ফিল্ডে আছে তাদের সাথে টক্কর দিয়ে তাদের কে টপকে উপরে উঠতে। না এভাবে তো কিছুই হবে না ব্রাদার! পরিকল্পনা অনুয়াজি কাজ করতে হবে কেবল তবেই আপনি বেটার কিছু করতে পারবেন। আচ্ছা আরও পরিষ্কার করে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করছি, ধরুন আপনি আপনার চ্যানেল থেকে যে গেমস টি খেলবেন ও লাইভে এসে যে গেমস টি স্ট্রিমিং কবেন; প্রথমেই আপনার সেই গেমস এর উপর কিছুটা হলেও দক্ষতা অর্জন করতে হবে। তারপর আস্তে আস্তে আরও বেটার করতে হবে এবং এক পর্যায়ে গিয়ে সেই গেমস এর সব কিছুই এক্কেবারে নিজের আয়ত্তে করে নিতে হবে।

যদি আপনি এইভাবে পরিকল্পনা করে আপনার কাঙ্ক্ষিত কাজ অথবা চ্যানেল টি স্টার্ট করে দিতে পারেন তবে আসা করা যাচ্ছে আপনি অবশ্যই ফিউচারে বেটার কিছু করতে সক্ষম হবেন। তার কারণ দেখুন বিষয় টা এমন আপনি যখনই একটি কাজে অনেক বেশি পারদর্শী হবেন ও সেই কাজ টি অনেক বেটার ওয়েতে করতে সক্ষম হবেন; তখন কিন্তু অন্যরা আপনার করা কাজের বাহবা প্রকাশ করবে। কিন্তু আপনি যদি মাথা নাই মুন্ডু নাই এক যায়গা থেকে শুরু করে দেন; তাহলে কিন্তু আপনি বাহবা তো পাবেন না উপরন্তু আপনার কাজের বদনাম হবে। আর হ্যাঁ এরকম টা আপনার চ্যানেল এর সাথেও হতে পারে – আপনি যখনই লাইভে এসে বেটার গেমিং পারফরমেন্স করবেন তখন আপনার অডিয়েন্স গন আপনার গেমিং করার ধরন কে বাহবা দিবে। আর যদি আপনি বাজে ভাবে আপনার গেমিং পারফরমেন্স করেন তাহলে আপনার অডিয়েন্স গন আপনাকে কি বলবে এটা আসা করি আপনাকে বুঝিয়ে বলতে হবে না!

তো এ জন্যই সব থেকে প্রথমে আপনার কাজ হচ্ছে নিজেকে ঠিক ভাবে তৈরি করা ও পরিকল্পনা করা। তারপর পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ টি করে যাওয়া। তারপর আর কি “বেস্ট অফ লাক মাই ব্রাদার”

গেমিং চ্যানেল এর ফিউচার কি?

নট টু ওরি ব্রাদার। অগ্রগতির এর মহাযাত্রায় গেমিং ইন্ড্রাস্টি ও কিন্তু মোটেও পিছিয়ে নেই! হুম আপনি জানেন কি একটি হলিউড মুভি থেকে যত টাকা ইনকাম হয় তার থেকে চার পাঁচ গুন বেশি টাকা ইনকাম হয় একটি গেমস থেকে হ্যাঁ আপনি ঠিক শুনছেন। অবশ্য হওয়ার ই কথা কেননা একটি গেমস তৈরি করা তো আর খুব সহজ লভ্য কিছু না। একটি গেমস তৈরি করতে অনেক মেধা ও শ্রম এর প্রয়োজন পড়ে তারপর গিয়ে তৈরি হয় একটি গেমস, আবার সেই গেমস গুলি নিয়মিত মেইনটেন্যান্স করতে হয়, এমন আরও অনেক বিষয় আছে। অন্য কোন এক আর্টিকেলে না হয় সম্পূর্ণ গল্প শেয়ার করবো।

এখন আপনি যদি সত্যি অনেক বেশি রকম সিরিয়াস হয়ে থাকেন গেমস নিয়ে ও আপনার মারাত্মক রকম ভাবে ভাল লাগে গেমস খেলতে ও আপনি আপনার পরিকল্পনা মাপিক ও কাজ করতে চাচ্ছেন কিন্তু ভয় পাচ্ছেন এটা ভেবে যে এই কাজের ফিউচার কি? কিছু কি হবে এই কাজের থেকে? ওয়েল খুব ভাল করে মন দিয়ে শুনুন, আপনি এই কাজ টি করতে চান! হুম এটা খুবই ভাল ডিচিশন, তবে হ্যাঁ একটা বিসয় কি সব কাজ সবার জন্য না; আপনি যদি নিজেকে একজন প্রো লেভেলের গেমার তৈরি করে নিতে পারেন তাহলে আপনি অবশ্যই অবশ্যই খুব ভাল কিছু করবেন ও আপনার ফিউচার ও খুব ভাল।

কিন্তু আপনি যদি ওই গা- ছেড়ে দেওয়া প্রো গেমার হওয়ার কথা চিন্তা করে থাকেন তাহলে আপনার প্রতি আমার পরামর্শ থাকবে আপনি অন্য কিছু ট্রাই করুন ব্রাদার। হয়তবা এই কাজ টি আপনার জন্য সুটেবল নাও হবে পারে। তবে আপনি যদি সিরিয়াস হয়ে ও পরিকল্পনা করে এই কাজ টি করতে পারেন। দেন গুড টু গো, আপনি অবশ্যই বেটার কিছু করতে পারবেন। তো সব কিছু মিলিয়ে এই ছিল আজকের আর্টিকেল হাঁপি লার্নিং টা,টা!

ইমেজ ক্রেডিট; By Soumil Kumar Via Pexels

আপনিও কি আমার মত টেক পোকা? আপনারও কি নতুন নতুন টেকনোলজি বিষয়ে জানতে ভালো লাগে? তাহলে বন্ধু আপনি একদম সঠিক জায়গাতে এসেছেন, কেননা আমি এখানে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন টেক বিষয় গুলি নিয়ে আলোচনা করি, এবং টেকনোলজির জটিল টার্ম গুলিকে আপনাদের সামনে জলের মত সহজ করে উপস্থাপন করার চেষ্টা করি।

2 Comments

  1. ছুমি Reply

    💋✅✅অনলাইন ইনকাম সম্পর্কে এতো সুন্দর করে আগে কেউ বুঝাই নি,, আপনাকে অনেক অনেক বেশি ধন্যবাদ স্যার।💕💕💕💋

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *