নতুন ব্লগ বা আর্টিকেল গুগলে rank না হওয়ার কারণ জেনে নিন।

আর্টিকেল গুগলে rank

নতুন এমন অনেক ব্লগার রয়েছে, তারা প্রতিনিয়ত তাদের ব্লগে ভালো কাজ করে চলেছে। তবে google search এ তাদের ব্লগ বা আর্টিকেল rank করিয়ে তুলতে পারছে না।

অনেকে শুধু কেবল এটা মনে করে, খুব করে আর্টিকেল লিখতে পারলেই কিছু দিনের মাঝেই ব্লগ বা আর্টিকেল google search rank করিয়ে নেওয়া সম্ভব।

তবে আপনি জেনে রাখুন। এটা অনেক বড় ভুল ধারনা। কেবল প্রচুর আর্টিকেল লিখলেই ব্লগ বা আর্টিকেল rank করিয়ে তোলা সম্ভব না।

যদি শুধু আর্টিকেল লিখলেই ব্লগ rank করিয়ে নেওয়া যেত, তবে অনেকেই আজ শুধু ব্লগিং করত।

তো আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি, ঠিক কি জন্য নতুন ব্লগ বা আর্টিকেল google এ rank করে না।

আজকের আর্টিকেলে আপনাকে যা কিছু বলা হবে, এই সকল বিষয় মাথায় নিয়ে আপনি কাজ করলে অবশ্যই আপনি নিজের ব্লগ বা আর্টিকেল google এ rank করিয়ে নিতে পারবেন।

আপনার ব্লগ বা আর্টিকেল গুগলে rank না হওয়ার কারণ কি?

আমি যখন নতুন ব্লগিং শুরু করেছিলাম তখন আমার মাথায় এই প্রশ্ন এসেছিল। কেন আমার ব্লগ rank হচ্ছেনা, কেন আমার ব্লগ গুগলে index হচ্ছে না।

তবে তখন আমি এ প্রস্নের সঠিক উত্তর খুঁজে পাইনি। তবে আজ প্রায় ৩ বছর পর আমি বুজতে পেরেছি ঠিক কেন তখন আমার ব্লগ rank হচ্ছিল না।

আমি শুধু তখন ভাবতাম, খুব করে আর্টিকেল লিখব। তারপর একটা সময়ে এমনিতেই ব্লগ rank হয়ে যাবে।

এমন কিছুই আসলে নয়। শুধু আর্টিকেল লিখেই ব্লগ বা আর্টিকেল গুগলে rank করিয়ে নেওয়া কখনই সম্ভব নয়।

গুগলে নিজের ব্লগ rank করিয়ে নেওয়ার জন্য অনেক গুলো factor নির্ভর করে থাকে। যার সব কিছু আপনি সঠিক ভাবে করতে পারলে। তখন সহজেই ব্লগ বা আর্টিকেল rank করিয়ে তুলতে পারবেন।

তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক – নতুন ব্লগ বা আর্টিকেল গুগলে rank না হওয়ার কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত।

keyword research না করবার কারনে

আমি শুরুতে যেমন বলেছিলাম, শুধু আর্টিকেল লিখলেই চলছে না। আপনাকে আর্টিকেল লেখার পূর্বে ঠিক ভাবে keyword research করে আর্টিকেল লিখতে হবে।

keyword research করে আর্টিকেল না লিখে থাকলে। খুব করে আর্টিকেল লিখে যাওয়া সর্তেও আপনার আর্টিকেল google rank করিয়ে তুলতে কখনই পারবেন না।

যার জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ করে আর্টিকেল লেখা অত্তাধিক জরুরি।

কেবল কিছু সংখ্যক ব্লগার রয়েছে। তারাই শুধু keyword research করে আর্টিকেল লিখে থাকে। ফলে তাদের ব্লগ বা আর্টিকেল অতি সহজেই তা google search এ rank করিয়ে তুলতে পারে।

যদি আপনি keyword research না করে আর্টিকেল লিখে থাকেন। তবে আজ থেকেই কিওয়ার্ড রিসার্চ করে আর্টিকেল লেখা শুরু করে দিন।

বাজে website desgin

আমি কেবল খুব অল্প কিছু লোকেদের দেখেছি। শুধু মাত্র তারাই Website desgin নিয়ে চিন্তিত থাকে।

দেখুন website desgin কিন্তু অনেক বড় ranking factor হয়ে উঠতে পারে। সেই সাথে Website desgin ভাল রাখলে income ও অধিক করবার সম্ভাবনা থাকে।

যদি আপনি খুব বেশি করে website desgin করে রাখেন। তবে আপনি কিছু সমস্যার মাঝে পড়বেন।

যতটা সম্ভব সহজ ও সাদা মাটা করে website desgin করবার চেষ্টা করবেন।

তাহলে google এর যেমন আপনার website ভাল লাগবে। ঠিক একই ভাবে আপনার visitor দের ও আপনার website ভাল লাগবে।

এবং আপনার visitor এর satisfaction মানেই কিন্তু google কে satisfy করা।

google যখন বুজতে শুরু করবে, আপনার ব্লগ থেকে visitor গন satisfaction পাচ্ছে। তখন এমনিতেই google আপনার ব্লগ ধিরে ধিরে rank করিয়ে তুলবে।

Mobile friendly ওয়েবসাইট তৈরি করুন।

ওয়েবসাইট mobile friendly করে রাখাটা বর্তমানে সব থেকে বড় ranking factor হয়ে দাড়িয়েছে।

যদি আপনার website mobile friendly না হয়ে থাকে। তবে কোন কিছু করেই আপনার ব্লগ google search এ rank করিয়ে নিতে পারবেন না।

এখন কেবল বেশির ভাগ visitor এ mobile থেকে website visit করে থাকে। ফলে নিজের website mobile friendly করে রাখা খুবই জরুরি।

যদি আপনার website desktop ও mobile দেখতে একই হয়। তাহলে আপনার খুব প্রয়োজন এখনই আপনার website mobile friendly করে নেওয়ার।

আপনার website mobile friendly কিনা তা জানতে mobile friendly test এখান থেকে করে নিতে পারবেন।

Website speed এর কারনে

website speed কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পার্ট, website rank করিয়ে নেওয়ার জন্য।

যদি আপনার website loading speed বাজে হয়ে থাকে। তবে google search এ rank করাটা খুবই কষ্টকর বিষয় হয়ে দাড়াতে পারে।

আমি দেখেছি, অনেকেই website speed এর উপরে একটুও নজর রাখে না। ফলে website loading speed হয়ে পড়ে খুব বাজে।

এবং স্বাভাবিক ভাবেই slow loading website rank করিয়ে তুলতে বেগ পেতে অবশ্যই হবে।

google নিজেই বলে দিয়েছে May 2021 page experience ranking factor হিসাবে গণ্য করা হবে।

এবং যদি আপনি visitor দের better page experience দিতে চান। তবে অবশ্যই আপনাকে website speed ভাল রাখতে হবে।

আপনার website speed বাজে হয়ে থাকলে। এখনই সময় website এর speed ঠিক ভাবে করে তুলুন।

Low quality backlink

আপনি কেবল backlink তৈরির জন্য ইচ্ছা মত যে যায়গা থেকে মন হয় backlink তৈরি করছেন।

তবে এমন হতে পারে, এই low quality backlink এর জন্য আপনার website rank হচ্ছেনা।

backlink তৈরি করবার সময় দেখে ও বুঝে তারপর backlink তৈরি করবেন। ইচ্ছা মত যে কোন website থেকে backlink তৈরি করবার ভুল করবেন না।

backlink তৈরি করবার পূর্বে কিছু বিষয় ধ্যান রেখে backlink তৈরি করতে পারলে আপনি high quality backlink তৈরি করে নিতে পারবেন।

যেমনঃ-

  • domain authority
  • domain age
  • domain spam score
  • content quality

আপনি যখন কোন website থেকে backlink তৈরি করবেন। তার পূর্বে এই বিষয় গুলি ধ্যান রেখেই backlink তৈরি করতে পারলে আপনি high quality backlink তৈরি করতে পারবেন আপনার website এর জন্য।

Domain authority

আপনি চাচ্ছেন আপনার website google search এ প্রথম পৃষ্ঠায় rank করিয়ে নিতে। তবে আপনার website এর domain authority দিকে খুব করে নজর রাখতে হবে।

জেনে রাখুন, আপনার website এর domain authority যত increase করে তুলতে পারবেন। ঠিক তেমন টাই google search এ rank করতে পারবেন।

তবে ইচ্ছা করলেই শুধু নিজের ব্লগের domain authority increase করে তোলা সম্ভব নয়।

নিজের ব্লগের domain authority increase করতে চাইলে আপনাকে অনেক high quality backlink তৈরি করে নিতে হবে।

জেনে রাখুন, আপনি যত বেশি high quality backlink তৈরি করে নিতে পারবেন। আপনার website এর domain authority ও ততটাই increase করিয়ে নিতে পারবেন।

Website age

স্বাভাবিক ভাবেই আপনার website এর age ও নির্ভর করে থাকে google এ website rank হবার পিছে।

আপনার website এর age যদি 6 month থেকে কম হয়ে থাকে। তবে মনে রাখবেন আপনাকে এখনও কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে।

কেননা আপনার website এর age যদি কম হয়ে থাকে। তাহলে আপনার ব্লগে কনটেন্ট ও খুব কমই থাকবে। ফলে website rank হতেও সময় লাগবে।

যাদের ব্লগের বয়স একদম কম তারা হতাশ হয়ে পড়বেন না। নিজের কাজ ঠিক ভাবে করে চলুন, website এর age বাড়তে বাড়তে আপনার website গুগলে rank করতে শুরু করবে।

Low quality content

যদি আপনি এমন আর্টিকেল লিখছেন তার কোন মূল্য নেই। তবে এমন আর্টিকেল কখনই rank করিয়ে নিতে পারবেন না।

সর্বদা better content তৈরি করবার চিন্তা করুন, যা থেকে অন্যর সাহায্য হতে পারে। অর্থাৎ এমন content তৈরি করুন যা থেকে আপনার visitor ভাল কিছু পেতে পারে।

আমি প্রথম থেকেই যেমন বলছি। শুধুই লিখে গেলে চলবেনা, আপনাকে অনেক কিছুর দিকে নজর রেখে কাজ করে যেতে হবে।

সর্বদা চেষ্টা করুন high quality content তৈরি করবার। এবং তা খুব সহজ ও সুন্দর করে উপস্থাপন করবার। দেখুন google এখন নিজে থেকে খুবই advance তাই জন্য google খুব সহজেই বুজতে পারছে আপনি ঠিক কেমন quality আর্টিকেল লিখছেন।

যদি আপনি search engine এ নিজের ব্লগ অথবা আর্টিকেল rank করিয়ে নিতে চান, তবে সব সময় high quality content তৈরি করুন।

Duplicate content তৈরি করবার জন্য

এমন অনেকেই আছে, তারা অন্যর ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে কিছু,কিছু করে কনটেন্ট copy করে নিজের ব্লগে তা লিখে থাকে।

যদি আপনি এমন কিছু করছেন, তাহলে কোন ভাবেই আপনার ব্লগ বা আর্টিকেল google এ rank করিয়ে নিতে পারবেন না।

কারণ আমি উপরেও বলেছি, google এখন প্রচুর advance তাই google খুব সহজেই বুঝে ফেলেতে পারবে। আপনি অন্য যায়গা থেকে content copy করেছেন।

এ জন্য সব সময় নজর রাখুন। কোন ভাবেই অন্যর content copy করে নিজের ব্লগে লেখার ভুল করবেন না।

করলে প্রায় অসম্ভব বলা চলে, আপনার ব্লগ অথবা আর্টিকেল google এ rank কখনই করাতে পারবেন না।

সর্বদা নিজে থেকে unique content তৈরি করুন।

On-page SEO

যদি আপনি website এ ঠিক ভাবে on-page seo না করে থাকেন তবে এই জন্যও হতে পারে আপনার website গুগলে rank হচ্ছেনা।

website ঠিক ভাবে search engine এ rank করিয়ে নিতে চাইলে অবশ্যই on-page seo উপরে প্রচুর ধ্যান রাখতে হবে।

একটি website rank করিয়ে তুলতে হলে, তার পিছে অনেক বড় অবদান থাকে on-page seo করবার।

তাই জন্য যদি আপনি ঠিক ভাবে নিজের website এ on-page seo না করে থাকেন। তাহলে on-page seo তে এখনই নজর দেওয়া উচিৎ আপনার।

Off-page SEO

on-page seo এর মতই কিন্তু অধিক গুরুত্বপূর্ণ off-page seo করে নেওয়ার। যদি কেবল আপনি on-page seo ঠিক ভাবে করছেন কিন্তু off-page seo তে নজর দিচ্ছেন না।

তবে হতে পারে, এই জন্যও আপনার website rank হচ্ছেনা।

এই জন্য, নিজের website এর off-page seo করাতাও কিন্তু খুব জরুরি।

website rank করিয়ে তুলতে চাইলে সর্বদা on-page seo এবং off-page seo দুই দিকেই আপনাকে সমন ভাবে নজর রেখে কাজ করে যেতে হবে।

Critical mistakes in your Robots.txt

যদি আপনি নিজের website এ wrong robots.txt ব্যবহার করছেন। তবে এটা হতে পারে সব থেকে বড় কারণ যার জন্য আপনার website rank হচ্ছে না।

জেনে রাখুন, আপনি উপরে বর্ণীত সব কিছু খুব সুন্দর করে নিজের website এ implement করেছেন। তবে robots.txt মাধ্যমে নিজের website crawle করা disable করে রেখেছেন।

ফলে কোন search engine এ আপনার website crawle করতে পারছে না।

যখন search engine আপনার website crawle করতে পারবে না। তখন কিভাবে আপনার website search engine rank বা index করবে।

তাই জন্য, robots.txt ব্যবহার করবার সময় অতান্ত সাবধানতার সাথে ব্যবহার করুন।

এবং আপনি robots.txt কি তা সম্পর্কে খুব বেশি না জেনে থাকেন। তবে তা যেমন আছে এমনই থাকতে দিন।

Penalize your site by google

এমন খুব কমই হয়ে থাকে। তবে কিছু ক্ষেত্রে google আপনার website penalize করে দিতে পারে।

যদি আপনি google এর policy লঙ্ঘন করে থাকেন।

সর্বদা চেষ্টা করুন google এর সকল policy মেনে চলবার।

এমন কিছু ভুল করবেন না, যার থেকে google সরাসরি আপনার website penalize করে দেয়।

যদি, আপনি adult,hacking, এই সমস্ত কিছু শেয়ার করছেন নিজের website থেকে। তবে google আপনার website penalize করে দিতে দু বার ভাববে না।

তাই জন্য সর্বদা google এর privacy policy অনুয়াজি কাজ করুন।

Technical problem

নতুন দের সাথে অনেক বেশি রকম কিছু technical problem হয়ে থাকে। যার সমাধান ঠিক সময়ে না করলে অনেক বড় সমস্যার পড়তে হতে পারে।

এমন কি, এসব technical problem এর জন্য website ranking factor ও হয়ে উঠতে পারে।

যদি আপনার website অধিক সময় down থাকছে। বা মাঝে, মাঝে আপনার website 10,15 minute এর জন্য down হয়ে যাচ্ছে তাহলে এই কারনের জন্যও আপনার website ranking problem হতে পারে।

যদি বার, বার আপনার website down হয়ে থাকে। তাহলে google খুব সহজেই তা বুঝে নিতে পারে।

মনে করুন, google থেকে আপনার website এ visitor এসেছে। কিন্তু ঠিক তখনই আপনার website down ফলে এটা visitor এর চোখে একটা bad experience.

ঠিক একই ভাবে এটা google এর কাছেও bad experience যদি আপনার website প্রতিনিয়ত এমন হতে থাকে। তবে আপনার website rank হবে না, বরং rank কমে যাবে।

তো অবশ্যই এই বিষয়ের উপর প্রচুর নজর রাখবেন। যদি বুজতে পারেন আপনার website সব সময় এমন হচ্ছে।

তাহলে শীঘ্রই আপনার hosting provider সাথে কথা বলুন ও প্রয়োজন পড়লে hosting change করে ফেলুন।

মূলকথাঃ-

কোন ভাবেই নিজের ব্লগ বা আর্টিকেল search engine এ rank করিয়ে নিতে পারছেন না। তবে উপরে বর্ণীত সকল উপদেশ নিজের website এ implement করে দেখুন।

বেশির ভাগ সময় কিছু ভুল করবার জন্য website rank করিয়ে তুলতে খুব রকম সমস্যার সৃষ্টি হয়।

তাহলে আমরা আশা রাখছি, আপনি জানতে পেরেছেন ঠিক কি কারনে নতুন ব্লগ বা আর্টিকেল গুগলে rank হয় না।

এবং আপনি যদি আজকের আর্টিকেলে দেওয়া উপদেশ গুলো মেনে কাজ করতে থাকেন। তবে আপনি অবশ্যই নিজের ব্লগ বা আর্টিকেল গুগলে rank করিয়ে নিতে পারবেন।

বাই,বাই।

আপনিও কি আমার মত টেক পোকা? আপনারও কি নতুন নতুন টেকনোলজি বিষয়ে জানতে ভালো লাগে? তাহলে বন্ধু আপনি একদম সঠিক জায়গাতে এসেছেন। কেননা আমি এখানে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন টেক বিষয় গুলি নিয়ে আলোচনা করি, এবং টেকনোলজির জটিল টার্ম গুলিকে আপনাদের সামনে জলের মত সহজ করে উপস্থাপন করবার চেষ্টা করি।

Comments 4

  1. খুবই তথ্য বহুল আর্টিকেল। একই সাথে অনেক প্রশ্নের সমাধান।

    Reply
    • ধন্যবাদ ভাই, আপনার মূল্যবান মতামত জানানোর জন্য।

      Reply
  2. ভীষণ উপকারী আর্টিকেল। ব্যাকলিংক তৈরীকে কেন্দ্র করে একটা ডেডিকেটেড আর্টিকেল চাই।

    Reply

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

>